সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
কিশোরগঞ্জে সার পাচারের ঘটনায় ডিলারের নামে মামলা মুমূর্ষুদের বাঁচাতে প্রাণ, আসুন করি রক্তদান” নড়াইলে বাঐসোনা ইউনিয়নে দু গ্রুপের সংঘর্ষ-গুলিবিদ্ধ ২ আহত ৪ জন ৮টি বাড়িঘর ভাংচুর। দেওয়ানগঞ্জে যমুনার পার থেকে ৯০ বোতল ভারতীয় মদ উদ্ধার,গ্রেফতার ১ আশাশুনিতে সমৃদ্ধি ও প্রবীণ কর্মসূচির ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত কলাপাড়ায় ওসির অপসারনের দাবিতে ঝাড়ু মিছিল ও বিক্ষোভ সমাবেশ কিশোরগঞ্জে জমিসহ ৫০টি ঘর পাচ্ছেন গৃহ ও ভূমিহীনরা। ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ঝালকাঠি জেলা কাঠালিয়া উপজেলায় বিজয়ী হলেন যাহারা নড়াইল জেলা পুলিশ লাইনস্ এর নবনির্মিত গান ক্লিয়ারিং পয়েন্টের নামফলক উন্মোচন হাটে নয়,ক্রেতার ভিড় খামারে । *ছোট ও মাঝারি গরুর চাহিদা বেশি কাঙ্খিত দামে মিলছে না পশু*

লোহাগড়ায় দুর্বৃত্তের হামলায় কাউন্সিলর ও স্ত্রী গুরুতর আহত

  • আপডেট সময় : বুধবার, ২০ মার্চ, ২০২৪
  • ১৮ বার পঠিত

জেলা প্রতিনিধি, নড়াইল
নড়াইলের লোহাগড়া পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের কচুবাড়িয়া গ্রামের কাউন্সিলর ফারুক শেখ (৪৫) ও তার স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন (৩৫) দুর্বৃত্তের হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন। আহত কাউন্সিলর দম্পতি লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) দিবাগত রাত ১ টায় এ ঘটনা ঘটে

ফারুক শেখ, কচুবাড়িয়া গ্রামের মৃত, ইশারত শেখের ছেলে এবং লোহাগড়া পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর।

ফারুক শেখ ও স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, মঙ্গলবার দিবাগত রাতে খাওয়া-দাওয়া সেরে নামাজ-কালাম পড়ে ঘুমিয়ে পড়ি। রাত ১টার দিকে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি শুরু হলে হঠাৎ ঘুম ভেঙে যায়। বাড়ির উঠানে কলাই (ডাল) শুখাতে দেওয়া রয়েছে। বৃষ্টিতে ভিজে যাবে বিধায় কলাই উঠাতে আমার স্বামী প্রথমে ঘর থেকে বের হয়ে কলাই ওঠানো শুরু করে এ সময় পূর্ব থেকে ওঁত পেতে থাকা রামপুর গ্রামের সুবাহান হাওলাদারের ছেলে রুবেল হাওলাদার (২৫) সহ ৩/৪ জনকে দেখতে পায় ফারুক। পাশাপাশি গ্রাম হওয়ায় পূর্ব পরিচিত রুবেলকে ফারুক জিজ্ঞাসা করে এত রাতে তুই এখানে কেন? জিজ্ঞাসার একপর্যায়ে রুবেলের হাতে থাকা হাতুড়ি ও রেঞ্জ দিয়ে ফারুকের মাথায় আঘাত করে। ফারুকের চিৎকার চেঁচামেচি শুনে স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন ঘর থেকে বেরিয়ে আসে। এ সময় সাবিনাকেও এলোপাথাড়ি আঘাত করে। সাবিনার মাথায় ও নাকে গুরুতর আঘাত প্রাপ্ত হয়। এ সময় ফারুক শেখ ও রুবেল দুজনেই ধস্তাধস্তি করে আঘাতপ্রাপ্ত হয়। এক পর্যায়ে ফারুক শেখ রুবেলকে ধরেই রাখে। এ সময় রুবেলের সাথে থাকা আরো কয়েকজন একটি সাদা রংয়ের মাইক্রো বাসে করে পালিয়ে যায়।
চিৎকার চেঁচামেচি শুনে এলাকাবাসী এসে তাদেরকে উদ্ধার করে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত রুবেল হাওলাদার হাসপাতালে অচেতন অবস্থায় থাকায় তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।
লোহাগড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ঘটনাটি শুনেছি অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর