শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৩:২৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
নিকলীতে দুটি ড্রেজারসহ ৫ জন গ্রেফতার। লোহাগড়ায় শ্রী শ্রী জগন্নাথদেবের রথযাত্রা উৎসব অনুষ্ঠিত হাওরে অবৈধ ভাবে বালু উওোলনের মহোৎসব, হুমকিতে তীরবর্তী গ্রাম। খানসামায় বিপদসীমার উপরে আত্রাই নদীর পানি, প্লাবিত মানুষের মাঝে শুকনো খাবার ও নগদ অর্থ বিতরণ করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো:তাজ উদ্দিন বিদ্যুৎ স্পষ্ট হয়ে ৫ জনের মৃত্যু। ভোলা জেলার ১০টি থানার মধ্যে ২টি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদেরকে (ওসি) বদলি করা হয়েছে। বনবিড়াল উদ্ধার স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে যুবলীগ কর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ হতে হবে-হুইপ মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা দিনাজপুরে যাত্রীবাহী বাস ও আমবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত পাঁচজন লোহাগড়ায় সড়কের বিষফোঁড়া ভ্যান ও ইজিবাইক

লক্ষীপাশা বাজার এলাকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, দু’শতাধিক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর মাথায় হাত

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই, ২০২৪
  • ৬ বার পঠিত

রাশেদ রাসু, জেলা প্রতিনিধি নড়াইল

নড়াইলের লোহাগড়া পৌরসভার লক্ষীপাশা চৌরাস্তা বাজার এলাকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এতে প্রায় দুই শতাধিক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী পথে বসেছে।

বুধবার (৩ জুলাই) সকাল ১১ টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ম্যাজিস্ট্রেট মো: জহুরুল ইসলাম ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিঠুন মৈত্রের নেতৃত্বে এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ,সময় লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কাঞ্চন রায়ের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ অভিযানে অংশগ্রহণ করেন।
অভিযান চলাকালে প্রশাসনের পক্ষ থেকে এসব অবৈধ স্হাপনা উচ্ছেদকল্পে মাইকিং করা হলে তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবসায়ীরা তাদের স্ব স্ব স্হাপনা সরিয়ে নেন।

এ বিষয়ে চায়ের দোকানদার ঝন্টু খান বলেন, ‘ আমার পরিবারে ৯ জন সদস্য, ঋণ করে মহাসড়কের পাশে চায়ের দোকান দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলাম, প্রশাসন আমার চায়ের দোকানটি ভেঙ্গে দেওয়ায় পরিবারের সদস্যদের নিয়ে আমি দিশেহারা হয়ে পড়েছি’।

মুরগী ব্যবসায়ী নাসির উদ্দীন বলেন, ‘মহাসড়কের পাশে খাঁচা বানিয়ে মুরগীর ব্যবসা করে আসছিলাম, হঠাৎ করে প্রশাসন দোকানটি ভেঙে দেওয়ায় আমার রোজগারের পথ বন্ধ হয়ে গেল।

কাঁচামাল ব্যবসায়ী নাঈম বলেন, ‘ফুটপাতে বসে কাঁচা মালের ব্যবসা করছিলাম, পৌর কর্তৃপক্ষ অবৈধ স্হাপনা উচ্ছেদ করায় আমাদের মতো ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা পথে বসেছে।

এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ম্যাজিস্ট্রেট মো: জহুরুল ইসলাম গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন, লক্ষীপাশা বাজার এলাকা একটি দুর্ঘটনা প্রবন এলাকা। বিভিন্ন সময়ে লক্ষীপাশা চৌরাস্তা এলাকার মহাসড়কের উপর দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। রাস্তাটি প্রসস্থ করার উদ্দেশ্য আজকের এই অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। দীর্ঘদিন সড়কের পাশে যারা অবৈধ স্থাপনা গড়ে ব্যবস্থা করে আসছিল। তাদেরকে বিভিন্ন সময়ে মাইকিং করে অবৈধ স্থাপনা সরানোর নির্দেশ দিলেও সময়মত স্থাপনা সরিয়ে নেয়নি তারা। যার কারণে আজ এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর