শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০২:৫৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
নিকলীতে দুটি ড্রেজারসহ ৫ জন গ্রেফতার। লোহাগড়ায় শ্রী শ্রী জগন্নাথদেবের রথযাত্রা উৎসব অনুষ্ঠিত হাওরে অবৈধ ভাবে বালু উওোলনের মহোৎসব, হুমকিতে তীরবর্তী গ্রাম। খানসামায় বিপদসীমার উপরে আত্রাই নদীর পানি, প্লাবিত মানুষের মাঝে শুকনো খাবার ও নগদ অর্থ বিতরণ করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো:তাজ উদ্দিন বিদ্যুৎ স্পষ্ট হয়ে ৫ জনের মৃত্যু। ভোলা জেলার ১০টি থানার মধ্যে ২টি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদেরকে (ওসি) বদলি করা হয়েছে। বনবিড়াল উদ্ধার স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে যুবলীগ কর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ হতে হবে-হুইপ মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা দিনাজপুরে যাত্রীবাহী বাস ও আমবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত পাঁচজন লোহাগড়ায় সড়কের বিষফোঁড়া ভ্যান ও ইজিবাইক

বকশীগঞ্জে দিগন্তজুড়ে সরিষা ফুলে হুলুদের সমাহার। মৌ মৌ গন্ধে মধু আহরণের হিরীক

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৮৬ বার পঠিত

সরকার আব্দুর রাজ্জাক বকশিগঞ্জ প্রতিনিধি:

জামালপুরে বকশীগঞ্জ উপজেলায় এবার বারি- ৯, ১৪, বারি-১৭ বারি১৮,বিনা ৪, বিনা, ৯ ও বিনা ১১ সহ বিভিন্ন জাতের সরিষার চাষ হয়েছে । বকশীগঞ্জ উপজেলার সর্বত্রই সরিষার হলুদ ফুলে ছেয়ে গেছে বিস্তীর্ন ফসলের মাঠ। দিগন্তজুড়েই ঢেউ খেলছে চোখ জোরানো হুলুদের সমাহার। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় সরিষার উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্ট কৃষি বিভাগ ও কৃষকরা।
উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, গত বছর এ উপজেলায় ৪ হাজার ৬ শ ১৫ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষ হয়েছিল। এবার এ উপজেলায় চলতি মৌসুমে ৭ হাজার ৫শ’২০ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ করা হয়েছে। যা গত বছরের চেয়ে এবার ২হাজার ৯ শ ৫ হেক্টর জমিতে বেশী সরিষা আবাদ হয়েছে। মোট আবাদকৃত জমির মধ্যে ৪ হাজার ৫শ হেক্টর জমিতে বারি-১৪ জাতের সরিষা চাষ করা হয়েছে।
ধান বা অন্য ফসলের তুলনায় সরিষা আবাদ লাভজনক হওয়ায় কৃষকরা দিনদিন ঝুঁকে পড়েছে সরিষা চাষে। অপরদিকে স্থানীয় কৃষি বিভাগ সরিষা চাষে কৃষকদেরকে উৎসাহিত করায় এবং নানাভাবে প্রণোদনা দিয়ে ৬ হাজার ৭শ ৫০ জন কৃষকের মাঝে প্রতি বিঘার জন্য ১০ কেজি এমওপি সার, ১০ কেজি ডিএপি সার এবং ১ কেজি করে বীজ বিনামূল্যে প্রদান করেছেন।
উপজেলার সাধুরপাড়া ইউনিয়নের শান্তিনগর গ্রামের কৃষক ধানু মিয়া জানান, তিনি এবার ৩ বিঘা জমিতে বারি-১৪ ও ১৭ জাতের সরিষার চাষ করেছেন। প্রচুর ফুল ফুটেছিল এবং তা থেকে পরিপূর্ণ ছেঁইও ধরেছে। এ সময় আবহাওয়া অনুকূলেও ছিল। তিনি মনে করেন ফলন খুব ভাল হবে। পৌর এলাকার চরকাউরিয়া মাঝপাড়া গ্রামের সরিষা চাষি ইন্তাজ আলী জানান, বীজ বপনের ২ মাসের মধ্যেই সরিষা ঘরে উঠে আসে। সরিষা উঠিয়ে বোরো চাষ করতে কোনো সমস্যা হয় না এবং বোরো ধানের ফলনেও কোনো প্রভাব পড়ে না। তার মতে সরিষার আবাদ করা মানেই অতিরিক্ত লাভের মুখ দেখা।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, জমির অবস্থানুযায়ী কৃষকদের সঠিকমাত্রায় সার ও কীটনাশক দেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও সরিষা আবাদে কৃষকদের উৎসাহিত করতে ৬ হাজার ৭শ ৫০ জন কৃষককে বিনামূল্যে ২ ধরণের সার ও বীজ দেয়া হয়েছে।

সরকার আব্দুর রাজ্জাক
বকশীগঞ্জ, জামালপুর

Facebook Comments Box
এই জাতীয় আরও খবর